আমার বাংলা ব্লগঃরেসিপি–|| কাউন চাল দিয়ে সুস্বাদু পায়েস তৈরি||(১০% পে আউট লাজুক-খ্যাকের জন্য)

지난달

আজ ২রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ,শরৎকাল


সসালামু আলাইকুম


শ্রদ্ধেয় ভাই ও বোনেরা,আশা করি সবাই ভালো আছেন।আমিও আল্লাহর অশেষ রহমতে ভালো আছি।আজকে আমি আবারো আপনাদের সামনে হাজির হলাম নতুন আরেকটি রেসিপি পোস্ট নিয়ে।রেসিপিটি হলো কাউন চাল দিয়ে পায়েস তৈরি।এই পায়েসটি তৈরি করাও যেমন সহজ তেমনি এর স্বাদটাও খুব ভালো।তো চলুন আর কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক আজকের পায়েস রান্নার রেসিপিটি-


কাউন চাল দিয়ে তৈরি সুস্বাদু পায়েস

20210916_180456-1.jpg


পায়েস তৈরির জন্য প্রয়োজনীয় উপকরণের নাম নিম্নে দেওয়া হলোঃ

প্রয়োজনীয় উপকরণাদিঃ

উপকরণপরিমাণ
কাউন চালআধা কেজি
গরুর দুধএক কেজি
চিনি৩০০ গ্রাম
নারিকেল১ টি
এলাচ ফল২টি
লবণস্বাদমতো

পায়েস তৈরির প্রক্রিয়াটি নিম্নে ধাপ ক্রমান্বয়ে দেওয়া হলোঃ

প্রথম ধাপঃ

20210916_172752-1.jpg

প্রথমে দুধ চুলার উপর একটি পাত্রে নিতে হবে।এবার দুধ ফুটে ওঠা পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।

দ্বিতীয় ধাপঃ

20210916_173525-1.jpg

এবার কাউনের চালগুলো ভালোভাবে ধুয়ে এর পানি ঝরিয়ে নিতে হবে।

20210916_173608-1.jpg

তারপর দুধ ফুটে উঠলে এর ভিতর চালগুলো ঢেলে দিতে হবে।

20210916_173727-1.jpg

চাল ঢালার পর এগুলো চামচ দিয়ে দুধের সাথে ভালোভাবে মিক্স করতে হবে।

তৃতীয় ধাপঃ

20210916_173940-1.jpg

এবার এর ভিতর নারিকেলের ঝুরি দিয়ে ১০-১৫ মিনিট সময় পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।

20210916_174002-1.jpg

১০-১৫ মিনিট পর চালগুলো চামচ দিয়ে তুলে দেখতে হবে আধা সিদ্ধ হয়েছে কিনা,হয়ে গেলে পরিবর্তি ধাপে চলে যেতে হবে।

চতুর্থ ধাপঃ

20210916_174331-1.jpg

এবার এর ভিতরে এলাচ,চিনি এবং লবণ দিয়ে ভালোভাবে চামচ দিয়ে নাড়তে হবে।

20210916_174617-1.jpg

এবার পায়েসের রস কমে ঘন হয়ে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।এতে সর্বোচ্চ পাঁচ মিনিট সময় লাগে।তাহলেই তৈরি হয়ে যাবে আমাদের কাঙ্ক্ষিত কাউন চালের পায়েস।

পরিবেশনের ধাপঃ

20210916_180456-1.jpg

এবার পায়েস প্লেট বা প্রিচে নামিয়ে রাখলেই তা পরিবেশনের জন্য সম্পূর্ণ প্রস্তুত হয়ে যাবে।

20210916_180617-1.jpg


এই ছিল আমার আজকের পোস্ট-সহজ উপায়ে কাউন চাল দিয়ে পায়েস রান্নার পদ্ধতি।কাউন চাল অঞ্চলভেদে বিভিন্ন নামে পরিচিত।পায়েস ছাড়াও এই চাল দিয়ে খিচুড়ি এবং পিঠা তৈরি করা যায়।এতে খাবারগুলো যেমন সুস্বাদু হয় তেমনি এর পুষ্টিগুণাগুণও হয় অধিক।তাছাড়া আমাদের এলাকায় অতিথি আপ্যায়নে কাউন চালের পায়েস বেশ প্রচলিত।


সবিশেষে সবাইকে ধন্যবাদ জানাই আমার পোস্টটি ধৈর্য সহকারে পড়ার জন্য।আজকে পায়েসের রেসিপিটি আপনাদের কেমন লেগেছে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন।তো আজ এই পর্যন্তই, সবাই ভালো এবং সুস্থ থাকবেন।ধন্যবাদ।


পোস্ট সম্পাদনকারীঃ@abir10

my whats3word code:location

💖স্বাগতম 💖

Authors get paid when people like you upvote their post.
If you enjoyed what you read here, create your account today and start earning FREE STEEM!
STEEMKR.COM IS SPONSORED BY
ADVERTISEMENT
Sort Order:  trending

কাউন চাল দিয়ে কখনো এরকম পায়েস আমি খেয়ে দেখিনি।আপনি খুব সুন্দর ভাবে রেসিপির বর্ণনা দিয়েছেন।দেখে মনে হচ্ছে খুব সুস্বাদু হয়েছে।অনেক ধন্যবাদ আপনাকে আপনার রেসিপিটি আমাদের মাঝে শেয়ার করার জন্য।শুভ কামনা রইলো আপনার জন্য।

·

আপনাকেও ধন্যবাদ ভাইয়া।এবার তাহলে দ্রুত বাসায় ট্রাই করে ফেলেন।

কাউন চালের পায়েস এর কথা অনেক শুনেছি। কিন্তু কখনো খাওয়া হয়নি। পায়েস আমার খুবই পছন্দ। আমার স্ত্রী খুব ভালো পায়েশ রান্না করেন। তবে আমরা যে পায়েস খাই সেটার ভিতরে নারিকেল দেয়া হয় না। আপনার পায়েসটা দেখে মনে হচ্ছে খেতে খুব সুস্বাদু হয়েছে। ধন্যবাদ আপনাকে।

·

ধন্যবাদ ভাইয়া আপনার মন্তব্যের জন্য।আসলে পায়েসে নারিকেল দিলে এর স্বাদটা বৃদ্ধি পায়।এবার একবার নারিকেল দিয়ে পায়েস রান্না করে দেখতে পারেন স্বাদটা আগের থেকে কেমন লাগে।

কাউন এখন প্রায় বিলুপ্ত আর বিলুপ্ত জিনিসের রেসিপি দেখে খুব ভালো লাগলো। যাইহোক আপনার রেসিপি টি অনেক সুন্দর ছিল ধন্যবাদ আপনাকে।

·

ধন্যবাদ ভাইয়া...ঠিক বলেছেন কাউন এর চাল এখন আর সেরকম দেখা যাই না বললেই চলে।