আমার কবিতার খাতা থেকে :একজন রতন

12일 전

_DSC0003.jpg

Taken from my stock.previous used as PP

একজন নিঃসঙ্গ রাজমিস্ত্রির গল্প
বিনামূল্যে এক নির্মম রসিকতা
সকালের স্নিগ্ধতা নিয়ে ,
সে শুরু করে অন্যের ঘর গড়া।
খাবারের স্বল্পতা তার কাজের
গতিকে করে ত্বরান্বিত,
মুখে হাসি নিয়ে রাজমিস্ত্রি
কাজ করে যায় রাজার মেজাজে।
তার ঘরে অভাবের রাজকীয় সাম্রাজ্য
সেখানে তার একচেটিয়া শাসন,
আর দিন শেষ খিদের ভয়ংকর জ্বালা।
এই রাজমিস্ত্রি রতন আজকে
অনেক ক্লান্ত আর বিধস্ত,
প্রত্যেক দিন বেঁচে থাকা
তার কাছে পুরোনো দাম্পত্যের মতো
চলমান এক অভ্যাস।

একদিন এই ঘোলাটে চোখে
ছিলো রঙিন অনেক স্বপ্ন
কালো ভ্রমর এর মত দুটি চোখ,
চামেলির হাতের স্পর্শ ,
রতনের বাঁচার উদ্যম
সব এখন অতীত ধূসর।

নিজের ঘরে নেই একটিও ইট
সেই রতন ইটের পরে ইট গেঁথে
বানিয়ে ফেলে রাজপ্রাসাদ,
অন্যের দাম্ভিকতায় ,
খুঁজে পায় নিষ্ঠুর
এই সমাজের এক একটি স্বপ্নের
আকস্মিক মৃত্যু সংবাদ।


ধন্যবাদ।সবাই ভালো থাকবেন।

BoC- linet.png
-cover copy.png

|| Community Page | Discord Group ||


image.png

png_20211106_204814_0000.png

Beauty of Creativity. Beauty in your mind.
Take it out and let it go.
Creativity and Hard working. Discord

image.png

Authors get paid when people like you upvote their post.
If you enjoyed what you read here, create your account today and start earning FREE STEEM!
STEEMKR.COM IS SPONSORED BY
ADVERTISEMENT
Sort Order:  trending

রতন রাজমিস্ত্রির মাধ্যমে সকল রাজমিস্ত্রির বাস্তব জীবন তুলে ধরেছেন ভাই ।খুবই ভালো লাগলো ভাই ।এমন সুন্দর বিষয় সবার মাঝে শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ ভাই ।

This post has been upvoted by @italygame witness curation trail


If you like our work and want to support us, please consider to approve our witness




CLICK HERE 👇

Come and visit Italy Community



দাদা, আপনি খুবই সুন্দর কবিতা লিখেছেন একজন রতন।আপনার এটা প্রতিটি লাইন যেমন সুন্দর তার অর্থ গুলো তার থেকেও দ্বিগুণ সুন্দর।আপনার কবিতার প্রতিটি লাইন মনকে ছুঁয়ে দেই।দাদা,আপনি খুবই খুবই সুন্দর কবিতা লিখতে পারেন।

দাদা, কবিতার প্রতিটি লাইনে আমার খুব ভালো লেগেছে। তবে এই লেখার অংশটি আমার খুবই ভাল লেগেছে দাদা,

একদিন এই ঘোলাটে চোখে
ছিলো রঙিন অনেক স্বপ্ন
কালো ভ্রমর এর মত দুটি চোখ,
চামেলির হাতের স্পর্শ ,
রতনের বাঁচার উদ্যম
সব এখন অতীত ধূসর।

ধন্যবাদ দাদা, এত সুন্দর একটি কবিতা আমাদের মাঝে শেয়ার করেছেন।

নিজের ঘরে নেই একটিও ইট
সেই রতন ইটের পরে ইট গেঁথে
বানিয়ে ফেলে রাজপ্রাসাদ,
অন্যের দাম্ভিকতায় ,
খুঁজে পায় নিষ্ঠুর
এই সমাজের এক একটি স্বপ্নের
আকস্মিক মৃত্যু সংবাদ।

উপরের এই কবিতা লাইন গুলোতে অনেক অর্থ লুকিয়ে আছে। সমাজে বাস্তবতার সাথে লাইনগুলো অনেক মিল পাওয়া যায়। একজন শ্রমিক অনেক পরিশ্রম করে নিজের সব দক্ষতা কাজে লাগিয়ে অন্যের জন্য ঘর তৈরি করে কিন্তু নিজের একটা ঘর থাকেনা।
আপনার কবিতাটি অসাধারণ হয়েছে। আপনার প্রতি ভালোবাসা অবিরাম।

দাদা আপনি সবসময় খুব সুন্দর কবিতা লিখেন। আজকের তার ব্যতিক্রম হয়নি আজকের কবিতাটিও খুবই সুন্দর হয়েছে। প্রতিটা লাইন খুব সুন্দর করে আপনি লিখেছেন রাজমিস্ত্রি রতনকে নিয়ে। আপনার কবিতার লাইনগুলো সত্যি দাদা অনেক বাস্তব। আপনি বাস্তবতা কে মিল রেখে কবিতাগুলো লেখেন বলেই আপনার কবিতাগুলো এত সুন্দর দাদা। এত সুন্দর সুন্দর কবিতা আমাদেরকে উপহার দেওয়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ দাদা আপনার জন্য রইল শুভকামনা ভালো থাকবেন সবসময়।

আপনার সম্পূর্ণ কবিতাটা আমার দারুন লেগেছে দাদা। এবং আপনি খুবই সুন্দরভাবে লিখেছেন।একজন সাধারণ রাজমিস্ত্রির জীবনের কথা অসাধারণভাবে আপনার কবিতার মাঝে ফুটিয়ে তুলেছেন।

একদিন এই ঘোলাটে চোখে
ছিলো রঙিন অনেক স্বপ্ন
কালো ভ্রমর এর মত দুটি চোখ,
চামেলির হাতের স্পর্শ ,
রতনের বাঁচার উদ্যম
সব এখন অতীত ধূসর।

সম্পূর্ণ কবিতার মাঝে এই ছয়টা লাইন আমার কাছে সবচেয়ে ভালো লেগেছে।।

নিজের ঘরে নেই একটিও ইট
সেই রতন ইটের পরে ইট গেঁথে
বানিয়ে ফেলে রাজপ্রাসাদ

এই লাইনগুলো দেখে সত্যিই ভালো লেগেছে। বাস্তবতার কত মিল এই কবিতায়। সত্যিই একজন রাজমিস্ত্রী তার কাজের মাধ্যমে আমাদের যে উপকার করে,তার বিনিময়ে সে সামান্যই পায়। যেটা তার চাহিদা পূরণ করতেও অক্ষম। অনেক সুন্দর একটি কবিতা লিখেছেন দাদা, খুব ভালো লেগেছে।

দাদা আপনার প্রতিটা কবিতা আমার খুবই ভালো লাগে। কারণ আপনার কবিতার মধ্যে অর্থ লুকিয়ে থাকে। আপনার আজকের এই কবিতাটি পড়ে আমি সত্যিই অনেক মর্মাহত হয়েছি। আসলেই বাস্তবতা কঠিন।একজন শ্রমিক নিয়ে আপনি খুবই সুন্দর একটি কবিতা লিখেছেন। এর ভিতর শ্রমিকদের অবস্থা তুলে ধরছেন। আমরা জন্য শুভকামনা রইল।

দাদা আপনার কবিতাটিতে খুব সুন্দর ভাবে একজন রাজমিস্ত্রির জীবনে হতাশা ব্যর্থতার দিক গুলো ফুটিয়ে তুলেছেন। আপনার প্রত্যেকটি কবিতায় আমার খুব ভালো লাগে। আপনার কবিতার ভিতর অনেক তাৎপর্য লুকিয়ে থাকে।

Hi @blacks,
my name is @ilnegro and I voted your post using steem-fanbase.com.

Please consider to approve our witness 👇

Come and visit Italy Community

স্বপ্নগুলো বেঁচে থাকে , আবার কোন কোন স্বপ্ন মাটি চাপা গিয়েও , আবার নতুনভাবে জাগ্রত হয় নতুনভাবে গড়ার। এভাবেই তো চলছে সব । যাইহোক ভাই ভালো লিখেছেন ,শুভেচ্ছা রইল।

অনেক সুন্দর একটি টপিক নিয়ে লিখেছেন ভাইয়া। বছরের পর বছর যারা অন্যের বাসস্থান গড়ে দেয় কিন্তু তাদেরই বাসস্থানের গড়ে ওঠে না। তারপরও তারা চালিয়ে যায় জীবন নামের যুদ্ধ।

বাস্তব জীবনের নিষ্ঠুর এক গল্পের স্বাক্ষী হলাম আজ, যদিও দুর্দান্ত লিখেছেন, এ নিয়ে কোন কথা হবে না।

কিন্তু সত্যটা হলো, শুধুই রতন কেন, রতনের মতো হাজারও মানুষ আজ নিজ হাতে অন্যের স্বপ্ন তৈরী করছেন আর নিজের স্বপ্নটাকে যন্ত্রনার আড়ালে ঢেকে রাখছেন চাপা হাসি দিয়ে। সত্যি জীবনটাকে মাঝে মাঝে বড্ড বেশী অসহায় মনে হয়, বড্ড বেশী পানসে মনে হয়, বর্তমান সামাজিকরূপ দেখে। ধন্যবাদ

নিজের ঘরে নেই একটিও ইট
সেই রতন ইটের পরে ইট গেঁথে

আপনি কবিতা লিখার সময় যে কতটা গভীর চিন্তা-ভাবনা করে এরপর কবিতাটি লেখেন তা আমার মনে হয় এই দুইটি লাইন পড়লেই বুঝা যায়। এই দুইটি লাইন এর গভীরতা অনেক বেশি আসলেই তো। এরা অর্থাৎ এই মানুষগুলো ইটের উপরে ইট দিয়ে দালান তৈরি করে ফেলে কিন্তু নিজের ঘরে কিছুই নেই।

কবিতাটি পড়ে আমি রীতিমত অবাক, 🙂😯 আমাদের প্রিয় ব্ল্যাক দাদা এত সুন্দর করে কিভাবে কবিতা লিখেন। আসলেই তিনি একজন অসাধারণ প্রতিভার অধিকারী, দাদার যে কবিতাগুলো পড়ি, প্রত্যেকটা থেকে নতুন কিছু শিক্ষা পায় আজকের কবিতাটাও তার ব্যতিক্রম ছিল না অসাধারণ একটা কবিতা আমাদের মাঝে উপস্থাপন করেছেন দাদা। আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

এইগুলি খুব অসাধারণ শব্দ যা আপনি একত্রিত করেছেন, আমি এই সব দিয়ে কল্পনা করতে পারি,

নিজের ঘরে নেই একটিও ইট
সেই রতন ইটের পরে ইট গেঁথে
বানিয়ে ফেলে রাজপ্রাসাদ,

দাদা কবিতার এই লাইন গুলো অসাধারণ হয়েছে। দাদা আপনার লেখা কবিতাগুলো সবসময়ই আমার কাছে অনেক বেশি ভালো লাগে। রাজমিস্ত্রিদের জীবনী আপনি খুব সুন্দর ভাবে কবিতার মাধ্যমে তুলে ধরেছেন। সব মিলিয়ে অসাধারণ হয়েছে কবিতাটি। শুভকামনা রইল আপনার জন্য দাদা।

দাদা আপনার কবিতা নিয়ে কিছু বলার ভাষা আমার জানা নেই। তবে শুধু এটুকুই বলবো আপনার কবিতা গুলো অসাধারণ লাগে আমার কাছে।গড়ার কারিগররা এই পৃথিবীতে মূল্যায়ন পায় কম। ঠিক আপনার এই রতন এর মত।