"এসো নিজে করি"সপ্তাহ ( এরোসলের বোতল দিয়ে কলমদানি তৈরি)

4개월 전

আসসালামুয়ালাইকুম,আশা করছি সবাই ভালো আছেন।ধন্যবাদ দিতে চাই কমিউনিটির সম্মানিত এডমিন @rme দাদাকে এতো সুন্দর একটি সপ্তাহ ঘোষণা করার জন্য।ব্যক্তিগতভাবে আমি এই ধরনের কাজের প্রতি খুব বেশিই আগ্রহী।তো চলুন আর দেরি না করে মূল বিষয়ে আসি।এই সপ্তাহে এটি আমার প্রথম অংশগ্রহন।

এরোসলের বোতল থেকে কলমদানি তৈরিঃ


আমরা আমাদের বাসায় বিভিন্ন ধরনের বোতল ব্যবহার করে থাকি।ব্যবহার শেষে যেগুলো ফেলে দেই।তবে সেগুলোও কিন্তু রিসাইকেল করা যাবে।আমার কাছে এরোসলের বোতল ছিল জন্য আমি সেটাই ইউজ করেছি,এর পরিবর্তে আপনারা পারফিউমের বোতল,রুম স্প্রের বোতল,সোডা ক্যান,প্লাস্টিকের বোতল কিংবা উপযুক্ত মাপের কোনো নলাকার জিনিসই ব্যবহার করতে পারেন।কাজটি অত্যন্ত সহজ,যেকারো জন্যই কাজটি কোনো ব্যাপারই না।এর জন্য আপনাদের যা যা প্রয়োজন হবে সেগুলো হলোঃ

  1. এরোসলের ফাকা বোতল
  2. চাকু কিংবা হ্যাস্কো ব্লেড
  3. কাচি
  4. একটি মোটা কাগজ
  5. ইচ্ছানুযায়ী রঙিন একটি কাগজ
  6. ফেভিকল জাতীয় আঠা
  7. মার্কার পেন

এবার কাজের ধাপগুলো বর্ণনা করি-

ধাপ-১ঃ
সর্বপ্রথম আপনার কাছে থাকা বোতলটি নিয়ে মনে মনে মাপ করে নেবেন যে সেটি আপনার কলমগুলোকে ঠিকভাবে ধারন করতে পারবে কিনা।এক্ষেত্রে আমার এরোসলের বোতলটি বেশ ভালো ছিল।

IMG20210807151356.jpg

IMG20210807151551.jpg

ধাপ-২ঃ
এবার বোতলটিকে আপনার সুবিধাজনক মাপ অনুযায়ী কেটে নিবেন।আর কাটার সময় যেন সেটা আঁকাবাকা না হয় এবং আকৃতি সুষম হয় সেজন্য ছবির মতো করে দাগ দিয়ে দিতে পারেন।

IMG20210807151752.jpg

ধাপ-৩ঃ
এই ধাপটিই মূল কাজ।এবার যেকোনো একটি চাকু কিংবা হ্যাস্কো ব্লেড দিয়ে কেটে নিতে হবে।

IMG20210807153004.jpg

ধাপ-৪ঃ
আপনারা চাইলে ৩ নাম্বার ধাপেই কাজ সেরে ফেলতে লারেন।এই ধাপের আর দরকার নেই।এই ধাপ এবং এর পরের ধাপগুলো কলমদানিটিকে দৃষ্টিনন্দন করার জন্য।এবার আপনাদের প্রয়োজন হবে মোটা কাগজ এবং রঙিন কাগজের।

IMG20210807153255.jpg

IMG20210807154152.jpg

ধাপ-৫ঃ
এবার আপনার কেটে নেওয়া বোতলটির সম্পুর্ন গায়ের মাপে একটি রঙিন কাগজ কেটে নিয়ে আঠা দিয়ে বোতলটি পেচিয়ে নিতে হবে।

IMG20210807153613.jpg

IMG20210807153956.jpg

ধাপ-৬ঃ
কাগজ পেচানোর পর যদি আর কিছু নাও করেন তাও হবে।তবে পরের জিনিসগুলো করলে বোধয় ভাল্লাগবে।এবার মোটা কাগজটি দিয়ে ছবির মতো করে দুইটি শিং এবং দুইটি পা বানায় নিবেন।

IMG20210807155316.jpg

ধাপ-৭ঃ
বোতলের গায়ে লাগানোর জন্য যে রঙের কাগজ ব্যবহার করেছেন সেই রঙের কাগজ দিয়েই মোটা কাগজের তৈরি শিং এবং পাগুলোর উপর আস্তরন দিতে হবে।আরেকটু ভালো লাগার জন্য চাইলে ওই রঙিন কাগজের আস্তরনের উপর সাদা কাগজ কেটে লাগায় দিতে পারেন।

IMG20210807160224.jpg

IMG20210807161314.jpg

ধাপ-৮ঃ
এবার শুধু লাগানোর পালা।

IMG20210807161610.jpg

IMG20210807161840.jpg

ধাপ-৯ঃ
সামান্য একটু কাজ বাকি।শিং আছে পা আছে তো মুখ তো থাকতেই হবে।মার্কার ব্যবহার করে সেই মুখ বানায় দিলেই একদম সম্পুর্ন হয়ে যাবে কলমদানিটি।

IMG20210807162056.jpg

IMG20210807162135.jpg

কাজ একদম শেষ।এভাবেই তৈরি করতে পারেন একটি কলমদানি।তবে কিছু সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে।

  • যেহেতু চাকু আর কাচির ব্যবহার রয়েছে,তাই সাবধানতার বিকল্প কিছু নেই।
  • বোতলটি টিনের হয়ে থাকলে কাটার সময় খেয়াল রাখবেন যাতে হাত না কাটে।
  • কাগজ কাটার সময় মাপজোখ ভুল করা যাবেনা।
  • IMG20210807162416.jpg
    ছবিতে কলমদানিসহ আমি @farhantanvir

    Cc. @farhantanvir
    Shot on. Oppo f19 pro
    Location
    Date. 08/08/21

    Authors get paid when people like you upvote their post.
    If you enjoyed what you read here, create your account today and start earning FREE STEEM!
    STEEMKR.COM IS SPONSORED BY
    ADVERTISEMENT
    Sort Order:  trending

    ছোট বেলায় বানাতাম। আপনার পোস্টটি দেখে ছোটবেলার কথা মনে পরে গেল। ধন্যবাদ পোস্টটি শেয়ার করার জন্য।

    ·

    ভালো লাগলো আপনার কথা শুনে।ধন্যবাদ আপনাকে সুন্দর মন্তব্যের জন্য।

    সুন্দর হয়েছে ।বিশেষ করে আমরা যারা শৈশব গ্রামে কাটিয়েছি তারা এই রকম ছোট খাটো প্রয়োজনীয় জিনিস নিজেরাই বাড়িতে তৈরী করে নিতাম।এতে করে আমাদের সৃজনশীলতা বাড়তো আর অনেক ভালো লাগা কাজ করতো ।।

    ·

    ধন্যবাদ দাদা,আমি সবসময়ই চেষ্টা করি প্রয়োজনীয় জিনিসগুলো নিজে বানাতে।

    জিনিসটা সুন্দর হয়েছে। আমি খুবই অলস প্রকৃতির মানুষ। এখন আমার ও ইচ্ছে হচ্ছে কিছু একটা বানানোর।

    ·

    অবশ্যই বানাবেন আর আমাদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না।ধন্যবাদ।

    ভাই আপনার কলমদানি টি খুবই সুন্দর হয়েছে।ধন্যবাদ আপনাকে।

    ·

    সময় করে দেখার জন্য আপনাকেও ধন্যবাদ🥰

    একটু বুদ্ধি খাটালে আমাদের বাড়িতে থাকা অপ্রয়োজনীয় এবং ফেলনা জিনিস থেকে এরকম অনেক সুন্দর এবং কাজের জিনিস বানানো যায়।

    ·

    একদম সঠিক বলেছেন ভাইয়া

    ভালো বানিয়েছেন তো। নতুন কিছু শিখলাম। ধন্যবাদ শেয়ার করার জন্য।

    ·

    ভালো লাগলো জেনে যে পোস্টটি আপনার কাজে লেগেছে।😍

    খুব সুন্দর হয়েছে।আসলে কোনো কিছুই ফেলনা নয়।ধন্যবাদ আপনাকে।

    ·

    আপনাকেও।ধন্যবাদ আপু।🥰

    মন থেকে শুভেচ্ছা রইলো। ভালো বানিয়েছো তুমি। ধন্যবাদ তোমার প্রতিভা শেয়ার করার জন্য।

    ·

    অন্তরের অন্তস্থল থেকে ভালোবাসা রইলো আপনার জন্য🥰