সততা মোটেও মূল্যহীন না

지난달

শুভ বিকেল বন্ধুরা,

আজকের শুরুটা প্রশ্ন দিয়ে শুরু করলাম আমি, সাধারণত আমার মুড ভালো না থাকলে আমি এই ধরনের কাজ করে থাকি। কিন্তু সাভাবিক অবস্থায় আমি যে কোন বিষয় ভিন্নভাবে উপস্থাপন করার চেষ্টা করি। আসলে পারিপার্শ্বিক অবস্থা আমাদের মন ও মানসিকতাকে দারুণভাবে প্রভাবিত করে বলেই নানা বিষয় নিয়ে হুট করে আমাদের মুড অফ হয়ে যায়। আর মুড অফ নিয়ে ভালো কিছু চিন্তা করা সম্ভব হয় না।

আসলে আমি কিছুটা ব্যতিক্রম, এটা সব সময়ই বলি তবে কতটা ব্যতিক্রম সেটা আমি নিজেও জানি না। কারন পরিমাপ করার চেষ্টা করি নাই কোনদিনও, করার ইচ্ছেও নেই। যদিও পরিবারের সবাই আমাকে কিছুটা একরোখা কিংবা জিদ্দি নামে বেশী অবিহিত করে থাকেন। কারন আমি কখনোই তাদের মতো হতে পারি নাই কিংবা তাদের প্রত্যাশা অনুযায়ী কাজ করতে পারি নাই। আসলে আমি সব সময় আমার নীতিতে চলার চেষ্টা করেছি এবং করছি। অন্যদের নীতি নিয়ে বিন্দুমাত্র চিন্তা করার কিংবা আগ্রহ করার চেষ্টা আমি করি নাই কোনদিনও।

আমার বউও মাঝে মাঝে আমাকে খোঁটা দিয়ে থাকেন, কারন ঢাকা শহরের মাঝে থাকি, দুই দুইটা জব করি কিন্তু নিজের নামে একখন্ড জমি নেই, বাড়ী থাকার তো প্রশ্নই আসে না। হ্যা, অনেক কিছুই আমি নিরবে মেনে নেই, কারন আমি প্রশংসার চেয়ে সততাকে বেশী মূল্যবান মনে করি। আমি প্রতিপত্তি কিংবা ঐশ্বর্য অর্জনকে কখনো বেশী প্রাধান্য দেই নাই সততাকে নষ্ট করে। হয়তো আজকের সমাজে মানুষের নিকট সততা মূল্যহীন এক বস্তু, কিন্তু আমার কাছে এটা অতীত মূল্যবান কিছু।

honesty-4074545_1920.jpg

সততার কারনে আমি সব সময় নিজেকে অযোগ্য বিবেচনা করি, কারন সততার মূল্য কারো কাছে নেই। তাই সবাই এটাকে বিরক্তভাবে ভিন্ন কিছু হিসেবে চিহ্নিত করার চেষ্টা করেন। যেহেতু আমি এটাকে মূল্যবান হিসেবে বিবেচনা করি, যেহেতু তাদের দৃষ্টিকোন হতে আমার মূল্যায়ন অনেক কম হওয়া উচিত। সেই কারনে আমি আগ বারিয়েই নিজিকে মূল্যহীন ভাবতে শুরু করি।

মাঝে মাঝে পরিচিত কেউ কেউ আমার কাছে আসেন, কিছু বিষয়ে সহযোগিতার জন্য আমি যথাসাধ্য চেষ্টা করি। তারা যখন নিজেদের দুঃখের কথা প্রকাশ করেন, তখন কিন্তু আমার প্রচন্ড হাসি পায় কারন তারা জানেন না তাদের হতে বেশী খারাপ কিংবা নাজুক পরিস্থিতির মোকাবেলা আমি করেছি। তবুও নিজের সততা এবং আত্মবিশ্বাসকে নষ্ট হতে দেই নাই, বরং চেষ্টা সব সময় অব্যাহত রেখেছিলাম নীতির সাথে।

আমি সচারচর নিজের ব্যাপারে খুব বেশী কথা প্রকাশ করি না কিংবা প্রকাশ করার চেষ্টা করি না। কারন মানুষ এতো শুনতে চায় এবং উপভোগ করার চেষ্টা করে কিন্তু প্রকৃত শিক্ষাটা নেয়ার চেষ্টা করে না। যার কারনে আমি ভিতরের কথাগুলোকে সযত্নে ভিতরেই রেখে দেই। তবে হ্যা, শুরু হতে এখন পর্যন্ত আমি ব্লকচেইনে নানাভাবে সবাইকে আত্মবিশ্বাসী করার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছি। কারন আমাদের যে কোন পরিস্থিতি হতে বের হওয়ার জন্য আত্মবিশ্বাস খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

honesty-6097487_1920.jpg

আমি প্রায় চৌদ্দ বছর যাবত এক প্রতিষ্ঠানে জব করছি, অফিস ম্যানেজার হিসেবে। পুরো অফিসের এ্যাডমিন এবং একাউন্স আমার হাতে। আমি কিন্তু এখানে এসেছিলাম কম্পিউটার অপারেটর হিসেবে ইন্টারভিউ দেয়ার জন্য, জয়েনও করেছিলাম এই পোষ্টে কিন্তু কোম্পানীর মালিক আমাকে এক প্রকার জোর করেই বর্তমান পোষ্টটি দিয়েছিলেন কিছু দিন পরই। আমি কখনোই বড় কিছুর প্রত্যাশা করি না, কারন ঐ যে নিজিকে সব সময় অযোগ্য বিবেচনা করি।

আমি বিশ্বাস করি, আমার কাজ, নিষ্ঠা ও সততা আমার যোগ্যতা প্রমান করবে। আমার মুখের কথা, আমার শিক্ষাগত যোগ্যতা, শ্রুতিমধুর কণ্ঠ কিংবা আমার সুন্দর চেহারা কখনোই আমার যোগ্যতা পরিমাপের নির্ণায়ক হবে না। হয়তো সকলের চোখে সততা ও নিষ্ঠার কোন মূল্যায়ন নাও থাকতে পারে কিন্তু সঠিক সময়ে সঠিকভাবে প্রতিটি মানুষের সততা ও নিষ্ঠার মূল্যায়ন ঠিকই হয়ে থাকে, তার জন্য শুধু আত্মবিশ্বাস এবং ধৈর্যশক্তি জরুরী।

আমার মা একটা কথা বলেছিলেন, বাবা নিজের রুটি-রুজির জায়গাটা কখনো অপবিত্র করার চেষ্টা করোনা, কারন তাতে কখনো বরকত আসবে না। যদি সততা ধরে রাখতে পারো তবে অল্প জিনিষের মাঝেও বরকত খুঁজে পাবে। আমি আমার মায়ের কথার অমার্যদা করি নাই, এখনো চেষ্টা করি অন্তত রুটি রুজির জায়গাটা পবিত্র রাখার। টাকাতো নানাভাবে কামাই করা যায়, কিন্তু সততা? সেটা কোনদিনও সম্ভব না। সততা হয়তো সকলের চোখে মূল্যহীন কিন্তু সেটা সাময়িক সময়ের জন্য। সুতরাং ক্ষতির আশংকা থাকলেও সেটাকে নষ্ট করবেন না, যত্নসহকারে আগলে রাখুন।

Image from Pixabay.com 1 and 2

ধন্যবাদ সবাইকে।

break.png
Leader Banner-Final.pngbreak.png

আমি মোঃ হাফিজ উল্লাহ, চাকুরীজীবী। বাংলাদেশী হিসেবে পরিচয় দিতে গর্ববোধ করি। বাঙালী সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য লালন করি। ব্যক্তি স্বাধীনতাকে সমর্থন করি, তবে সর্বদা নিজেকে ব্যতিক্রমধর্মী হিসেবে উপস্থাপন করতে পছন্দ করি। পড়তে, শুনতে এবং লিখতে ভালোবাসি। নিজের মত প্রকাশের এবং অন্যের মতামতকে মূল্যায়নের চেষ্টা করি। ব্যক্তি হিসেবে অলস এবং ভ্রমন প্রিয়।

break.png


Support @amarbanglablog by Delegation your Steem Power

100 SP250 SP500 SP1000 SP2000 SP

-cover copy.png

Authors get paid when people like you upvote their post.
If you enjoyed what you read here, create your account today and start earning FREE STEEM!
STEEMKR.COM IS SPONSORED BY
ADVERTISEMENT
Sort Order:  trending

অকপটে কথা বলাও সততার অংশ। খাইলেন আলু ভর্তা,শোনালেন আন্ডা ভাজা। সেখানে সততার বাস থাকতে পারে না। বিশ্লেষণ করে বলার জন্য, আপনাকে সবসময় স্বাগতম

·

হ্যা, অবশ্যই কারন সততাসম্পন্ন মানুষগুলো সাহস বেশী থাকে। ধন্যবাদ

আমার মা একটা কথা বলেছিলেন, বাবা নিজের রুটি-রুজির জায়গাটা কখনো অপবিত্র করার চেষ্টা করোনা, কারন তাতে কখনো বরকত আসবে না।

আপনার মায়ের এই কথাটি অসম্ভব ভালো লেগেছে। আমার আমাদের সকলের উচিত সৎপথে চলে নিজে রুটি-রুজির কে সব সময় পবিত্র রাখা। ধন্যবাদ আপনাকে।
অনেক মূল্যবান কথা গুলো ছিলো।

·

ধন্যবাদ ভাই, আসলে আগের মানুষগুলো নীতির বিষয়ে অনেক আপোষহীন ছিলেন।

অসৎ ভাবে কাজ কর্ম করে জীবনে জুড়ে আসবে না।সব সময় কিছুটা অপূর্ণ থেকেই যাবে।যখনই আমি সৎ ভাবে কাজ করতে পারবো তখনই আমার ভেতরের লোভ নর্দমায় চলে যাবে অন্যথায় লোভ আমার ঘাড়ে চড়ে বসবে।এটাই সত্য কথা সততাই সেরা পন্থা

অনেক সুন্দর লিখেছেন ভাই।গল্পটি থেকে আমাদের সকলের কিছু শিক্ষা নেওয়া উচিত।অনেক শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা রইলো ভাই।

·

ধন্যবাদ ভাই, পোষ্টটি পড়ে আপনার সুন্দর মন্তব্য ভাগ করে নেয়ার জন্য।

·
·

ভাবীর খোচা আমিও পাই ভাই। বাড়ির কথা বলে। আমার মোটেও শখ জাগেনা। আসলে দিনশেষে নিজের কাছে পরিশুদ্ধ থাকাটা অনেক জরুরী। আপনার জীবনমূখী সততার কথাগুলো বরাবরের মত অনেক ভাল লেগেছে।

·

হা হা হা হা
সকল জায়গায় একই অবস্থা ভাই। ধন্যবাদ মন্তব্য ভাগ করে নেয়ার জন্য।

·
·

কমন পড়ছে।

সৎ পথে হয়তো কম অর্থ উপার্জন কম হবে। জমিজমা স্থাবর অস্থাবর সম্পত্তি কম হবে কিন্তু মানসিক শান্তি সর্বদা বজায় থাকবে। তাছাড়া অসৎ হলে নিজের বিবেকের কাছে কি উত্তর দেবো সেই দিকটাও থাকে। তাই একটু খোঁটা সহ্য করলেও সৎ থাকা শ্রেয়।

·

হ্যা, এটাই বাস্তবতা। আর এই কারনে আমরা এখন সৎ পথ ছেড়ে অসৎ পথের দিকে পা বাড়াই। এটা এখন আমার সয়ে গেছে, হি হি হি

আপনার সততার গল্প অসাধারণ লেগেছে আমার কাছে ভাই।আপনি অনেক সুন্দর লিখতে পারেন। শিক্ষামূলক একটি পোস্ট। আরও অনেক শিক্ষনীয় পোস্ট আপনার কাছ থেকে উপহার পাবো।

·

ধন্যবাদ ভাই, পুরো লেখাটি পড়ার জন্য।

·
·

❤️❤️❤️

You have been upvoted by @sm-shagor A Country Representative, we are voting with the Steemit Community Curator @steemcurator07 account to support the newcomers coming into steemit.


Follow @steemitblog for the latest update. You can also check out this link which provides the name of the existing community according to specialized subject

There are also various contest is going on in steemit, You just have to enter in this link and then you will find all the contest link, I hope you will also get some interest,

For general information about what is happening on Steem follow @steemitblog.

ভাইয়া আপনার এই লেখাটা খুব দরকার ছিলো ভাইয়া, খুব বেশিই।আসলে আজকাল নৈতিকতা যে কোথায় যাচ্ছে! আন্টির - " বাবা নিজের রুটি-রুজির জায়গাটা কখনো অপবিত্র করার চেষ্টা করোনা, কারন তাতে কখনো বরকত আসবে না "কথাটা আমার খুব ভালো লেগেছে।
আমাদের সকলকের উচিৎ আপনার এই কথাগুলো মেনে চলা।

·

হ্যা, বিষয়টি আমাদের জীবনের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ, কিন্তু আমরা কি সত্যি বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করি? মোটেও না, কারন আমাদের চাই সবকিছু সেটা যেভাবেই হোক না কেন!

·
·

আসলেই
গুরুত্বের জায়গাটাকে গুরুত্বহীন করে ফেলছি আমরা।

ভাই বাঙালির জীবনে দুটো জিনিস সবচেয়ে বড় সমস্যা। এক হচ্ছে সততার অভাব আর পরশ্রীকাতরতা। আমরা শুধু অন্যকে সৎ দেখতে পছন্দ করি। নিজের সততার জায়গার কথা কখনো চিন্তা করিনা। আর আমরা অন্য কারো ভালো দেখতে পারিনা। আমার থেকে উপরে উঠে যাবে কেউ বা আমার সমকক্ষ কেউ হবে। এটা আমরা মোটেও পছন্দ করি না। আর আমরা অন্যকে জ্ঞান দিতে পছন্দ করি কিন্তু নিজে কিছু শিখতে চাই না। এটাও আমাদের জীবনে অনেক বড় সমস্যা। অনেক ভালো একটি ব্যাপার নিয়ে লিখেছেন। ধন্যবাদ আপনাকে।

·

ঠিক বলেছেন আপনি, আপনার কথার সাথে আমিও সহমত পোষণ করছি।

আমি মনে করি সততা বড় কঠিন জিনিস যেটা সবাই অর্জন করতে এবং ধরে রাখতে পারে না। আমরা পৃথিবীর সব লোভ লালসায় ডুবে নিজেদেরকে সততা নামক শব্দটা থেকে দূরে নিয়ে এসেছি।যেখানে আমাদের সব সময় উচিত ছিল সত ভাবে নিজের জীবনটাকে পরিচালনা করা। যেখানে আমরা একটু সমস্যায় পরলেই বেছে নেয় অসৎ পথটা। আপনার জীবমের সততার গল্পটা পড়ে বেশ ভালো লাগল।

আমি প্রায় চৌদ্দ বছর যাবত এক প্রতিষ্ঠানে জব করছি, অফিস ম্যানেজার হিসেবে

আপনার এই সাফল্যের পথ চলা এগিয়ে যাক। এটাই সব সময় কামনা করি। এভাবেই সততার সাথে নিজেকে প্রকাশ করে যান ভাইয়া। শুভ কামনা এবং ভালোবাসা রইল।

·

হ্যা, এটা ধরে রাখা খুবই কঠিন বিষয় ভাই কিন্তু তবুও আমাদের চেষ্টা চালিয়ে যাওয়া উচিত। ধন্যবাদ

সৎ উপায়ে উপার্জন করা উপাসনার তুল্য । সত্য কথা বলতে কি এটি শ্রেষ্ঠ উপাসনা। অর্থ, প্রতিবিত্ত,চেহারা,বংশ বংশ মর্যাদা কিছু আমাদের মর্যাদার আসনে বসাবে না। একমাত্র সততা, পরিশ্রম, শিষ্টাচার আমাদের মর্যাদার আসন দিতে পারে। সাধনা ও পরিশ্রমের সাথে যদি জ্ঞানের যোগ থাকে কেউ আমাদের উচ্চ আসন থেকে সরাতে পারবে না কিন্তু এইটা আমরা মানতে চাইনা কিভাবে অল্প সময়ে অধিক অর্থের অধিকারী হবো সেটায় আমাদের যেন লক্ষ্য। অনেক সুন্দর করে সামগ্রিক বিষয় আলোচনা করেছেন ভাইয়া। ধন্যবাদ

ভাইয়া নিজের জায়গা বা বাড়ি না থাকলেও আপনি যে একজন সৎ ব্যক্তি তা এই পোস্ট পড়েই বুঝতে পেরেছি ।আর নিজে সৎ থাকতে ভিতরে যেই একটা ফিল থাকে সেটা টাকা বাড়ি গাড়ি থাকলেও থাকে না ।আর একটা ব্যাপার আপনাকে যতটুকু দেখেছি তাতে মনে হয় নি আপনি একরোখা কিংবা জিদ্দি।ভালোবাসা রইল প্রিয় ভাই আমার ।

আপনার মায়ের কথাটি আমাকে অনেক সাহস দিয়েছে আর ভালো লেগেছে। আপনার মায়ের কথায় কথা মিলিয়ে, সুরে সুর মিলিয়ে আমিও বলি যেখানে কাজ করব সেই জায়গাটা পবিত্র রাখার দায়িত্ব আমার।

আমার বউও মাঝে মাঝে আমাকে খোঁটা দিয়ে থাকেন, কারন ঢাকা শহরের মাঝে থাকি, দুই দুইটা জব করি কিন্তু নিজের নামে একখন্ড জমি নেই, বাড়ী থাকার তো প্রশ্নই আসে না।

ভাই আপনার পোস্ট পড়ে মাঝে মাঝে শারীরিক শক্তি পাই। অসাধারণ সব উপদেশের বাণী নিয়ে আমাদের মাঝে আসেন।

ভাই সৎ মানুষরা বাড়ি গাড়ি চাইলেও করতে পারে না, তাদের মাঝে অল্পতে সন্তুষ্ট থাকাটা বেশি কাজ করে। আপনার প্রতি অনেক অনেক ভালোবাসা ভাই।

Congratulations, your post has been upvoted by @dsc-r2cornell, which is the curating account for @R2cornell's Discord Community.

Manually curated by @jasonmunapasee

r2cornell_curation_banner.png

আসসালামু আলাইকুম। বড় ভাই আসা করি ভালো আছেন। অনেক দিন পরে STEEMIT-এ এসে আপনাকে দেখে অনেক সৃতি মনে পরে গেল।

·

@mynulshovon ভাই কেমন আছেন? আশা করছি ভালো আছেন। স্টিম এ কাজ করা এখন আরো বেশী সহজ এবং বাংলায় কাজ করার ভালো সুযোগ তৈরী হয়েছে, আমার বাংলা ব্লগ কমিউনিটির মাধ্যমে। ধন্যবাদ