টক-ঝাল-মিষ্টি জলপাইয়ের আচারের রেসিপি(১০% বেনিফিশিয়ারী shy fox এর জন্য)

지난달

আসসালামুআলাইকুম সবাইকে। আমার বাংলা ব্লগের বন্ধুরা কেমন আছেন? আশা করি সবাই ভাল আছেন। আমিও ভাল আছি আলহামদুলিল্লাহ।

আমার আজকের রেসিপিটি দেখলে যে কারো মুখে পানি চলে আসবে। কারন আমার নিজেরই পোস্ট লেখার সময় মুখে পানি চলে আসছে।। তা হল জলপাইয়ের টক, ঝাল, মিষ্টি আচার। এটি খেতে খুবই সুস্বাদু হয়। আমি প্রতিবছর জলপাইয়ের আচার বেশি করে বানিয়ে রাখি পুরো বছর খাওয়ার জন্য ইনশাআল্লাহ। এটি ভাতের সঙ্গে অথবা খিচুড়ির সাথে খেতে খুব মজা লাগে। তাই ভাবলাম যে রেসিপিটি আপনাদের সঙ্গে শেয়ার করি। আপনারা যদি কেউ আচার পছন্দ করে থাকেন তাহলে এই পদ্ধতিতে একবার আচার বানিয়ে দেখবেন যে কতটা মজা লাগে খেতে। তাহলে শুরু করি।


IMG_20211204_234410.jpg



প্রস্তুত প্রণালীঃ


জলপাই১ কেজি
চিনি২ কাপ
সরিষার তেল১ কাপ
রসুনবড় ২টি
পাঁচফোরন১টেবিল চামচ (১চা চামচ তেল এ দেয়ার জন্য)
শুকনা মরিচ৮ টা
ভিনেগার১ টেবিল চামচ
লবণপরিমাণমতো
বিট লবণ১চা-চামচ
মরিচের গুঁড়া১ চা চামচ
হলুদ গুঁড়া১ চা-চামচ

IMG_20211122_163103.jpg



ধাপ ১

IMG_20211204_234013.jpg

প্রথমে একটি প্রেসার কুকার নিয়ে তার ভেতরে ধুয়ে রাখা জলপাইগুলো দিয়ে পরিমাণমতো লবণ দিয়ে দিয়েছি।


ধাপ ২

IMG_20211204_234021.jpg

এখন পরিমাণমতো পানি দিয়ে দিয়েছি সিদ্ধ করার জন্য।


ধাপ ৩

IMG_20211204_234049.jpg

জলপাই সিদ্ধ হতে হতে এই সময়ে আমি একটি মসলা তৈরি করে নিব। সেজন্য প্রথমে একটি কড়াই গরম করে তার ভেতরে পাঁচফোড়ন গুলো হালকা টেলে নিব।


ধাপ ৪

IMG_20211204_234056.jpg

পাঁচফোড়ন টালা হলে সেগুলো উঠিয়ে নিয়ে এখন শুকনা মরিচ গুলো হাল্কা গরম করে নিব।


ধাপ ৫

IMG_20211204_234107.jpg

এখন একটি বাটিতে উঠিয়ে নিয়েছি পাঁচফোড়ন শুকনা মরিচ।


ধাপ ৬

IMG_20211204_234133.jpg

এখন একটি ব্লেন্ডারের সাহায্যে শুকনো মরিচ এবং পাঁচফোড়ন গুঁড়ো করে নিব।


ধাপ ৭

IMG_20211204_234140.jpg

পাঁচফোড়ন ও মরিচ গুঁড়ো করা হয়ে গেলে একটি বাটিতে উঠিয়ে রাখবো।


ধাপ ৮

IMG_20211204_234148.jpg

এদিকে আমার জলপাই সিদ্ধ হয়ে গিয়েছে।


ধাপ ৯

IMG_20211204_234158.jpg

জলপাই গুলোর পানি সব ফেলে দিয়েছি।


ধাপ ১০

IMG_20211204_234206.jpg

একটি পাত্রে উঠিয়ে নিয়ে জলপাইগুলো চটকে নিয়েছি এবং বিচিগুলো সব ফেলে দিয়েছি।


ধাপ ১১

IMG_20211204_234214.jpg

অপরদিকে চুলায় একটি ফ্রাইপ্যান বসিয়ে তার ভিতর সরিষার তেল দিয়ে দিয়েছি।


ধাপ ১২

IMG_20211204_234223.jpg

সরিষার তেল গরম হলে প্রথমে পাঁচফোড়ন দিয়ে দিয়েছে এবং তার কিছুক্ষণ পর সরিষার তেলে রসুন কুচি গুলো দিয়ে দিয়েছি।


ধাপ ১৩

IMG_20211204_234230.jpg

পাঁচফোড়ন এবং রসুন কুচি গুলো হাল্কা ভেজে নিয়েছি।


ধাপ ১৪

IMG_20211204_234238.jpg

এ পর্যায়ে সরিষার তেল গুলো এরকম ফেনা উঠবে।


ধাপ ১৫

IMG_20211204_234246.jpg

তার কিছুক্ষণ পর আমি সিদ্ধ করে রাখা জলপাইগুলো এর ভিতর দিয়ে দিয়েছি।


ধাপ ১৬

IMG_20211204_234254.jpg

তারপর আগে থেকে গুঁড়ো করে রাখা মসলাগুলো দিয়ে দিয়েছি।


ধাপ ১৭

IMG_20211204_234301.jpg

এখন জলপাইগুলো তেলের সঙ্গে ভালো মতো মিশিয়ে নিয়েছি।


ধাপ ১৮

IMG_20211204_234307.jpg

জলপাইগুলো মসলার সঙ্গে ভাল মত কষিয়ে নিয়ে ১ কাপ চিনি দিয়ে দিয়েছে।


ধাপ ১৯

IMG_20211204_234317.jpg

চিনি গলে পানি বের হয়েছে।


ধাপ ২০

IMG_20211204_234327.jpg

ওই চিনিগুলো টেনে আসলে আবার ১কাপ চিনি দিয়ে দিয়েছি।


ধাপ ২১

IMG_20211204_234336.jpg


IMG_20211204_234342.jpg

এখন জলপাই প্রায় হয়ে গিয়েছে। এ পর্যায়ে আমি এর ভিতরে ভিনেগার দিয়ে দিয়েছি যাতে দীর্ঘদিন এটি সংরক্ষণ করা যায়।


ধাপ ২৩

IMG_20211204_234352.jpg

এখানে জলপাইয়ের পানি সব টেনে আসলে চুলা বন্ধ করে দিয়েছি।


ধাপ ২৪

IMG_20211204_234421.jpg

এভাবেই তৈরি হয়ে গেল আমার টক ঝাল মিষ্টি জলপাই এর আচার। এখন আমি একটি বাটিতে উঠিয়ে নিয়েছি। আশা করি আপনাদের সকলের আমার আজকে রেসিপিটি ভালো লেগেছে। সবাই ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন।

ধন্যবাদ

@tania

Photography@tania
Phoneoppo reno5

আমি তানিয়া তমা। আমি বাংলাদেশে থাকি। ঢাকায় বসবাস করি। আমি বিবাহিত। আমার দুটি ছেলে আছে। আমার শখ রান্না করা, শপিং করা, ঘুরে বেড়ানো। আমি বাংলায় কথা বলতে ভালোবাসি। আমি আমার বাংলাদেশকে ভালবাসি।

Authors get paid when people like you upvote their post.
If you enjoyed what you read here, create your account today and start earning FREE STEEM!
STEEMKR.COM IS SPONSORED BY
ADVERTISEMENT
Sort Order:  trending

টক-ঝাল-মিষ্টি জলপাইয়ের আচারের রেসিপি আপনি দারুন ভাবে তৈরি করেছেন। আমার খুবই ভালো লেগেছে। প্রতিটি ধাপ খুব সুন্দর করে উপস্থাপন করেছেন। প্রয়োজনীয় উপকরণ সুন্দর ভাবে নিয়েছেন আপু। অনেক ভালো লাগলো। আপনার জন্য শুভকামনা রইল।

·

আপনার জন্যও শুভকামনা রইল ভাইয়া। ধন্যবাদ সুন্দর মন্তব্যের জন্য।

জলপাইয়ের আচার আমার কত যে প্রিয় আপনাকে তা বলে বোঝাতে পারবো না। এইতো কিছুদিন আগেই বাসা থেকে জলপাইয়ের আচার খেয়ে আসলাম মেসে।

আপনি খুব সুন্দরভাবে আজকের এই রেসিপিটি শেয়ার করেছেন, আপনার উপস্থাপনা অনেক সুন্দর ছিল আপু। আপনার জন্য রইল প্রাণঢালা শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।

·

ভাইয়া এটি বানানো খুবই সহজ। আপনি চাইলেই বানাতে পারবেন। এভাবে বানিয়ে দেখবেন খেতে খুবই সুস্বাদু লাগে। আপনাকে ও অভিনন্দন।

আপু আপনার জলপাই আচার দেখে সত্যি সত্যিই আমার জিভে পানি চলে এসেছে।জলপাই আচারটা কি সুন্দর কালার হয়েছে। এভাবে করে জলপাই আচার তৈরি করলে আমারটা তেমন একটা ভালো হয় না আপনার রেসিপিটা দেখে আমি ট্রাই করবো হলে আমি এখানে শেয়ার করব। ধন্যবাদ আপু মজার একটি খাবারের রেসিপি শেয়ার করার জন্য।

·

আপু এভাবে বানিয়ে দেখবেন কত মজা লাগে। আমিতো প্রতিবছর এভাবে বানিয়ে সংরক্ষন করে রাখি। খেতে খুবই সুস্বাদু লাগে। আমার বাচ্চা তো খুবই পছন্দ করে এটা খেতে। ধন্যবাদ আপনাকে।

আপু,জলপাইয়ের আচার শুনেই আমার জিভে জল চলে এল।আমি যেকোনো আচার খেতে খুবই পছন্দ করি।তাছাড়া আপনার তৈরি আচারটি দারুণ হয়েছে।দেখেই খেতে মন চাইছে।কালারটি খুবই সুন্দর।ধন্যবাদ আপু।

·

আপনাকেও ধন্যবাদ আপু।

ওয়াও আপু আপনি খুব সুন্দর করে জলপাইয়ের আচার করেছেন। দেখেতো মুখে জল চলে আসলো। দেখে মনে হচ্ছে খুবই মজাদার হয়েছে। খুবই সুন্দর ভাবে প্রতিটি ধাপ আপনিও উপস্থাপন করেছেন যা দেখে সবাই খুব সহজেই জলপাইয়ের আচার তৈরি করতে পারবে। আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ আপু এত সুন্দর একটি রেসিপি আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য আপনার জন্য রইল অনেক অনেক শুভকামনা।

·

ধন্যবাদ আপু এত সুন্দর মন্তব্য করার জন্য।

আপনার বানানো জলপাইয়ের আচার টি দেখে সত্যি বলছি জিভে জল চলে আসছে। এমনিতেই আমি আচার খেতে খুব ভালোবাসি।আর আপনার বানানোর রেসিপি টা দেখে তো ভীষণ লোভ লাগছে।আপনি খুব সুন্দরভাবে রেসিপিটি বানিয়ে আমাদের সাথে শেয়ার করেছেন।ধাপ ১৯😍 আমার খুব ভালো লাগছে। সবমিলিয়ে পুরো উপস্থাপনাটা খুব সুন্দর ছিল।অনেক শুভকামনা রইল আপনার জন্য।

·

আসলে আমি প্রতিবছর অনেক আচার বানাই। কিন্তু আমি তেমন একটা আচার খাই না। আচার খায় আমার ছেলে আর আমার হাজবেন্ড। ওদের কাছে খুবই মজা লাগে এই আচারটি।তাই বানানো হয়। ধন্যবাদ আপনাকে মন্তব্যের জন্য।

টক ঝাল মিষ্টি জলপাই আচারের রেসিপি দেখে আমার খেতে খুব ইচ্ছে করছে। আপনি খুবই সুন্দর ভাবে এই রেসিপিটি আমাদের মাঝে উপস্থাপন করেছেন। আপনার উপস্থাপনা দেখে আমার খুবই ভালো লাগলো। আপনার জন্য শুভকামনা রইল।

·

তোমার পোস্টটি আপনার ভালো লেগেছে জেনে খুশি হলাম। ধন্যবাদ আপনাকে সুন্দর মন্তব্যের জন্য।

দেখেই জিভে জল চলে এসেছে আপু। অনেক বেশি সুস্বাদু লাগছে দেখতে। ইচ্ছে করছে এখনই একটু খেয়ে টেস্ট করে দেখি। আচারের কালার টা অনেক ভালো লাগছে দেখতে। খুব সুন্দর করে প্রতিটি ধাপ আমাদের সাথে উপস্থাপন করেছেন। আপনাকে ধন্যবাদ আপু এত সুন্দর একটি রেসিপি আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য। আপনার জন্য অনেক শুভকামনা রইল।

·

আপু আসলেই আচারটি খেতে অনেক সুস্বাদু লাগে। আপনি একবার এভাবে বানিয়ে দেখবেন খুবই মজা লাগবে খেতে।ধন্যবাদ আপনাকে সুন্দর মন্তব্যের জন্য।

আপু আচারের ছবিগুলো দেখে তো লোভ ধরিয়ে দিলেন।পার্সেল করে পাঠিয়ে দিন এখন।হাহাহা মজা করলাম।আপনি প্রতিনিয়ত অনেক সুন্দর সুন্দর রেসিপি বানিয়ে সুন্দরভাবে উপস্থাপন করেন।বরাবরের মতো আজকের রেসিপিও অনেক সুন্দর হয়েছে।শুভকামনা রইলো আপনার জন্য।

·

বাসায় এসে খেয়ে যান ভাইয়া অনেক বানিয়ে রেখেছি।
আপনি প্রতিনিয়ত আমার পোস্টগুলো দেখেন শুনে ভালো লাগলো। ধন্যবাদ আপনাকে সুন্দর মন্তব্যের জন্য।

ঠিক বলেছেন আপু, জলপাইয়ের আচার খিচুড়ি অথবা ভাতের সাথে খেতে খুবই ভালো লাগে। তবে আমি ছোটবেলায় খিচুড়ি দিয়ে জলপাইয়ের আচার খেতে খুবই পছন্দ করতাম।আমার মা খুবই সুস্বাদু ভাবে আচার তৈরি করত আপনার মত। কিন্তু আপু আমি সুস্বাদু ভাবে আচার তৈরি করতে পারিনা।জলপাইয়ের আচার তৈরি করার প্রতিটি ধাপ আপনি খুব সুন্দর ভাবে উপস্থাপন করেছেন।
অসংখ্য ধন্যবাদ আপু এতো সুস্বাদু জলপাইয়ের আচার আপনি আমাদের মাঝে শেয়ার করেছেন

ঠিক বলেছেন আপু, জলপাইয়ের আচার খিচুড়ি অথবা ভাতের সাথে খেতে খুবই ভালো লাগে। তবে আমি ছোটবেলায় খিচুড়ি দিয়ে জলপাইয়ের আচার খেতে খুবই পছন্দ করতাম।আমার মা খুবই সুস্বাদু ভাবে আচার তৈরি করত আপনার মত। কিন্তু আপু আমি সুস্বাদু ভাবে আচার তৈরি করতে পারিনা।জলপাইয়ের আচার তৈরি করার প্রতিটি ধাপ আপনি খুব সুন্দর ভাবে উপস্থাপন করেছেন।
অসংখ্য ধন্যবাদ আপু এতো সুস্বাদু জলপাইয়ের আচার আপনি আমাদের মাঝে শেয়ার করেছেন

·

আপু আচার বানানো তো খুবই সহজ একটি কাজ। আপনি একবার বানানোর চেষ্টা করে দেখবেন মজা হবে। প্রথমে আমার এই রেসিপিটি দিয়ে শুরু করতে পারেন। একদম সহজ একটি রেসিপিটি। আশা করি খুব ভাল ভাবে বানাতে পারবেন ।শুভকামনা রইল আপনার জন্য।

খুবই লোভনীয় একটি রেসিপি শেয়ার করেছেন আপনি। জলপাইয়ের আচার আমার খুবই পছন্দের। আপনার রেসিপিটি দেখেই লোভ লেগে গেলো। সবগুলো ধাপ খুব সুন্দর সহজ ভাবে তুলে ধরেছেন আমাদের সঙ্গে। এত সুন্দর একটি রেসিপি শেয়ার করার জন্য অনেক ধন্যবাদ আপনাকে। শুভকামনা রইল।

·

আপনাকে ধন্যবাদ সুন্দর মন্তব্যের জন্য।